শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ০২:০৬ পূর্বাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English

নাগরপুরে ৪০ পিছ ইয়াবা সহ গ্রেফতার ২ ব্যবসায়ী
মো. শহিদুল ইসলাম নাগরপুর, টাঙ্গাইল / ১১১ বার
আপডেট : শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০

টাঙ্গাইলের  নাগরপুরের মামুদনগর ইউনিয়ের ভাতশালা বাজারের এক মিষ্টির দোকান থেকে ২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে নাগরপুর থানা পুলিশ।

নাগরপুর থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল ৩ আক্টবর শুক্রবার নাগরপুর থানা পুলিশের একটি চৌকস দল, এসআই মোঃ আলমগীর হোসেন এর নেতৃত্বে সঙ্গীয় এএসআই মোঃ রাসেল মিয়া ও খন্দকার আনিছুজ্জামান গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার মামুদনগরের ভাতশালা বাজারের মোঃ আমিনুল ইসলাম এর মিষ্টির দোকানের ভিতর থেকে কুড়িগ্রামের রৌমারি উপজেলার বাটকামারী গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের ছেলে মোঃ সাইফুল ইসলাম (২৬) ও রৌমারি উপজেলার পাখিয়া গ্রামের মৃত আরছপ আলীর ছেলে মোঃ আঃ রশিদ ( ৫০) কে ৪০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও মদক বিক্রয়ের নগদ ৩ তিন হাজার টাকা সহ গ্রেফতার করে।
জানা যায়, এরা দুজনেই গাড়ীতে টাংগাইল এসে জেলার বিভিন্ন থানায় ইয়াবা বিক্রি করে নিজ জেলায় চলিয়া যায়। তাদেরর বিরুদ্ধে নাগরপুর থানায় ৩ নং ক্রমিকে ০৩/১০/২০২০ তারিখে, ২০১৮ সালের মাদকদ্রব্যনিয়ন্ত্রন আইনের ৩৬ (১) এর ১০ (ক) ধারায় একটি মাদক মামলা দায়ের করে, গ্রেফতারকৃতদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করেছে থানা পুলিশ।

এ বিষয়ে নাগরপুর থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) মো. আলম চাঁদ বলেন, গতকাল নাগরপুর থানা পুলিশের একটি চৌকস দল, এসআই মোঃ আলমগীর হোসেন এর নেতৃত্বে সঙ্গীয় এএসআই মোঃ রাসেল মিয়া ও খন্দকার আনিছুজ্জামান গোপন সংবাদের ভিত্তিতে, উপজেলার মামুদনগরের ভাতশালা বাজারের মোঃ আমিনুল ইসলাম এর মিষ্টির দোকানের ভিতর থেকে কুড়িগ্রামের রৌমারি উপজেলার বাটকামারী গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের ছেলে মোঃ সাইফুল ইসলাম (২৬) ও রৌমারি উপজেলার পাখিয়া গ্রামের মৃত আরছপ আলীর ছেলে মোঃ আঃ রশিদ ( ৫০) কে ৪০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট ও মদক বিক্রয়ের নগদ ৩ তিন হাজার টাকা সহ গ্রেফতার করে। তাদের বিরুদ্ধে নাগরপুর থানায় ৩ নং ক্রমিকে ০৩/১০/২০২০ তারিখে, ২০১৮ সালের মাদকদ্রব্যনিয়ন্ত্রন আইনের ৩৬ (১) এর ১০ (ক) ধারায় একটি মাদক মামলা দায়ের করে, গ্রফতারকৃতদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
এই মাদক ব্যবসায়ীদের মূল হোতাদের সন্ধানে আমাদের তদন্ত ও অভিযান অব্যহত রয়েছে। নাগরপুর উপজেলাকে মাদক মুক্ত করতে আমরা সর্বদা সজাগ থেকে, জিরো টলারেন্স নীতিতে মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যহত রেখেছি। উপজেলাকে মাদক মুক্ত করাই আমাদের মুল লক্ষ্য।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো সংবাদ