শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৪:৩৯ অপরাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English

এতিম শিশুদের নিয়ে বাবার ৩৬তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন করলেন চুমকি এমপি
বিল্লাল হোসেন, নিজস্ব প্রতিবেদক / ৩৪ বার
আপডেট : শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০

:গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন মাদ্রাসার এতিম শিক্ষার্থীদের নিয়ে শহীদ ময়েজউদ্দিনের ৩৬ তম শাহাদাত বার্ষিকী পালন করলেন তাঁর সুযোগ্য কন্যা মেহের আফরোজ চুমকি এমপি। রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কালীগঞ্জ পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ফেরিঘাট এলাকায় শহীদ ময়েজউদ্দিন আহমেদের ৩৬ তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভা, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল এবং তবারক বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে মেহের আফরোজ চুমকি এমপি বলেন, শহীদ ময়েজউদ্দিনও এতিম ছিলেন। শৈশব কালে তিনি বাবা-মাকে হারিয়ে হন। শৈশব কালে যারা মা-বাবাকে হারায়, আপনজন কেউ থাকে না। তাদের জীবন সংসারে বেড়ে উঠা বড়ই কষ্টের। আল্লাহপাক তাদের দেখেন এবং তাদের পাশে থাকেন।

আমার বাবা শহীদ ময়েজউদ্দিন আত্মবিশ্বাস, সততা আর পরিশ্রমের মাধ্যমে উচ্চ শিক্ষা নিয়ে বেড়ে উঠেন। শহীদ ময়েজউদ্দিনকে যারা হত্যা করেছে তারা অমানুষ। তারা শহীদ ময়েজউদ্দিনকে নয়, তারা লাখ মানুষকে হত্যা করেছে। শহীদ ময়েজউদ্দিনকে দিয়ে লাখ মানুষের উপকৃত হতো। হত্যাকারীরা সমাজের ঘৃণিত মানুষ, এদেশের মানুষ তাদেরকে মাফ করতে পারে না।

বাবাকে হারানোর পর কতটুকু বেদনা হয়, স্বজনহারা ছাড়া তা কেউ বুঝতে পারবে না। আমার বাবা দেশ ও জাতির জন্য গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে গেছেন। যেই সব মানুষের মনে জীবজন্তু বসবাস করে তাদের প্রতিহত করতে হবে। সেই সব লোক সমাজে বেশি দিন টিকতে পারে না।

এতিম ও মাদ্রাসার শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের মারধর করা যাবে না। স্নেহ ও আন্তরিকতার মাধ্যমে তাদের শিখাতে হবে।
পরে শহীদ ময়েজউদ্দিনের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল এবং তবারক বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়া বাহাদুরসাদী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শহীদ ময়েজউদ্দিনের শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল ও তবারক বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। বিকেলে মোক্তারপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে নোয়াপাড়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে শহীদ ময়েজউদ্দিনের শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল ও তবারক বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট আশরাফী মেহেদী হাসান, কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোয়াজ্জেম হোসেন পলাশ, পলাশ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ জাবেদ হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক এইচ.এম আবু বকর চৌধুরী, পলাশ পৌর মেয়র মো. শরীফুল হক,

উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. শরিফুল ইসলাম সরকার তোরণ, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মো. দেলোয়ার হোসেন দুলাল, উপজেলা আওয়ামী লীগের অর্থবিষয়ক সম্পাদক মো. শরীফ হোসেন খান কনক, কালীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি এস.এম রবিন হোসেন, সাধারন সম্পাদক মো. কামরুল ইসলাম,

বাহাদুরসাদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দীন আহমেদ, বাহাদুরসাদী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. সিরাজুল ইসলাম মাষ্টার, সাধারন সম্পাদক মো. কামাল হোসেন, মোক্তারপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএম আলমগীর হোসেন, সাধারন সম্পাদক সফিকুল ইসলামসহ দলীয় অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো সংবাদ