শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ০৪:২২ পূর্বাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English

নড়াইলের সেই বৃদ্ধা মাকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিতে রাজি হয়েছে তার বড় ছেলে
উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধিঃ / ৭৩ বার
আপডেট : শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১

নড়াইল শহরের কুড়িগ্রাম এলাকার বাসিন্দা মৃত কালিপদ কুন্ডুর স্ত্রী মায়া রাণী কুন্ডুর (৮৫) দুই পুত্র সন্তান দেব কুন্ডু (৫০) এবং উত্তম কুন্ডু (৪০)। উত্তম কয়েক বছর পূর্বে বিবা’হ করে অন্যত্র বসবাস করায় শহরের রূপগঞ্জ বাজারের বাঁধাঘাট এলাকার ব্যবসায়ী দেব কুমার মাকে দেখাশোনা করছিল। মায়ের নামে ৫শতক জমি লিখে নেয়ার পর মায়ের সাথে দু*র্বব্যহার শুরু করে। গত দেড় বছর মায়ের ভরণ-পোষন দিতে অস্বীকার করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। পরে বৃদ্ধা মা এ বাড়ি ও বাড়িতে অবস্থানের পর সর্বশেষ গত ১২দিন বরেণ্য চিত্রশিল্পী এস এম সুলতান কমপ্লে*ক্স সংলগ্ন সুলতান ঘাটের ওপর রাখা শিল্পী সুলতানের নৌকার নীচে রোদ-বৃষ্টি উপেক্ষা করে মান*বেতর জীবন-যাপন শুরু করেন। ৮৫ বছরের বৃদ্ধা মায়ের আ’শ্রয় হলো নড়াইল সদর হাসপাতালে। শনিবার জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা বৃ*দ্ধাকে হাসপাতালে দেখতে যান এবং তার চিকিৎসার খোঁ’জ-খবর নেন। এদিকে বৃদ্ধার বড় সন্তান মাকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিতে রাজি হয়েছেন। জানা গেছে, শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিষয়টি নজরে আসার পর এ প্রতিনিধি জেলা প্রশাসক আনজুমান আরাকে ফোন করলে তিনি দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন এবং ওই দিনই বৃ*দ্ধাকে হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করেন। সদর হাসপাতালের আরএমও মশিউর রহমান বাবু বলেছেন, তিনি বা*র্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে ভূ*গছেন। তার সুস্থতার জন্য হাসপাতালে আরও দু’তিন দিন থাকতে হবে বলে জানান।

হাসপাতালের বিছানায় শায়িত বৃদ্ধা মায়া রাণী কুন্ডু বলেছেন, এখনও যে ভালো মানুষ আছে তা বুঝতে পারলাম। যতদিন বেঁচে আছি ততদিন যেন একটু সু’স্থ ও শান্তিতে থাকতে পারি, তিনি সন্তানের কাছে সেই আশা করেন।

এ ব্যাপারে মায়া রাণীর ছেলে নড়াইল শহরের ছোট ব্যবসায়ী দেব কুন্ডু বলেছেন, হাসপাতাল থেকে মাকে সরাসরি বাড়িতে নিয়ে যাব। তিনি তার কৃ’ত কর্মের জন্য মায়ের কাছে ক্ষ*মা প্রার্থনা করেন। জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা এ প্রতিনিধিকে বলেন, এ বিষয়টি জানার পর শুক্রবারেই তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে দেওয়া হয়েছে। নড়াইল-২ আসনের এমপি মাশরাফী বিন মোর্ত্তজাও বৃ*দ্ধার খোঁ’জ-খবর নিচ্ছেন। বৃ*দ্ধার বড় সন্তান দেব কুন্ডু তার মাকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিতে সম্মত হয়েছে। সন্তান ঠিকমতো তার কাকে দেখভাল করছে কিনা আমরা খোঁজ-খবর রাখব। এরপর পূনরায় তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হলে তার বিরুদ্ধে আই*নানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো সংবাদ