বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০১:৩৭ অপরাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English

মেয়র-কাউন্সিলর দ্বন্দে পৌর সভায় ঝুলছে তালা-পৌর নাগরিকরা সেবা বঞ্চিত
তৌকির আহাম্মেদ হাসু সরিষাবাড়ী(জামালপুর) থেকে / ৯০ বার
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০

জামালপুরের সরিষাবাড়ী পৌরসভার মেয়র-কাউন্সিলর দ্বন্দে পৌর সভায় ঝুলছে তালা।আজ বুধবার সরেজমিনে গিয়ে পৌর কার্যালয়ে সেবা নিতে আসা পৌর নাগরিকরা সেবা বঞ্চিত হয়ে ক্ষোভ নিয়ে ফিরে যেতে দেখা গেছে।

পৌর কাউন্সিলর সেবা বঞ্চিত নাগরিক সূত্রে জানা গেছে,সরিষাবাড়ী পৌর মেয়র রুকুনুজ্জামান রোকনের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতা ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে পৌর কর্মচারীদের ১৫-১৭ মাসের বেতন বকেয়া,কাউন্সিলরদের ১৭-১৮ মাসের সম্মানী বকেয়া রেখে মেয়র তার নিজের সম্মানী উত্তোলন করেছেন,নিয়োগ বাণিজ্য নিয়োগ প্রাপ্তদের নিকট থেকে ১২-১৫ লাখ টাকার বিনিময়ে পৌর সভার চাকুরীতে নিয়োগ দিয়েছেন।
এ ছাড়াও মেয়রের বিভিন্ন ভুয়া ভাউচারের মাধ্যমে দুর্নীতি ও অনিয়মের মাধ্যমে অর্থ আত্মসাত,কেন্দ্রীয় বাস ষ্ট্যান্ড নির্মানের তহবিল আত্মসাত করার বিভিন্ন অভিযোগ আনয়ন করে।এ অভিযোগটি গত ১লা মে স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়,বাংলাদেশ সচিবালয়ের সচিব বরাবর ১২ কাউন্সিলরের স্বাক্ষরিত অনাস্থা প্রদান করে পত্র দিয়েছেন।
পৌর মেয়র রুকুনুজ্জামান রোকন পৌর সভার কার্যক্রম থেকে অনুপস্থিত থাকায় পরিস্কার পরিচ্ছন্ন কর্মীদের,পৌর কাউন্সিলর গনের এবং কর্মচারীদের বেতন বকেয়া পড়েছে। ফলে বকেয়া বেতন পরিশোধ না হওয়া পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের জন্য গত ৬ সেপ্টেম্বর পৌর কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে কর্মবিরতি ঘোষণা করেছেন তারা।ফলে পৌর সভার নাগরিক পানি সেবা বাদে অন্য সকল সেবা বন্ধ রয়েছে।যার ফলশ্রুতিতে পৌর নাগরিকদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।
পৌর কর পরিশোধ করতে আসা সাবেক উপজেলা ছাত্র লীগের সহ-সভাপতি তরিকুল ইসলাম জানান, পৌর কর পরিশোধ করতে এসে দেখছি তালাবদ্ধ। তাই পরিশোধ না করে চলে যাচ্ছি।
জানতে চাইলে পৌর সচিব আবু সাইদ বলেন,মেয়রের অনুপস্থিতির ফলে পৌর সভার কাউন্সিলর,কর্মচারীগণ ও পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন কর্মীদের বেতনাদি বকেয়া রয়েছে। ওই বকেয়া বেতনের দাবীতে পৌর কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতির পালন করছে।
এ ব্যাপারে পৌর প্যানেল মেয়র-১ মোহাম্মদ আলী জানান,পৌর মেয়র রুকুনুজ্জামান রোকন এর বিরুদ্ধে কাউন্সিলরদের অনাস্থা নিষপন্ন না হওয়ায় স্বাভাবিক কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। তাই স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ সচিবালয়ের সচিব এর নিকট মেয়রের বিরুদ্ধে অনাস্থা নিষপন্ন করে পৌর সভার স্বাভাবিক কার্যক্রম চালুর দাবী জানাচ্ছি। মেয়রের বিরুদ্ধে অনাস্থা নিষপন্ন না হওয়ার কারনেই গত ৬ সেপ্টেম্বর থেকে পৌর সভায় তালা ঝুলছে।
পৌর মেয়র রুকুনুজ্জামান রোকন এর নিকট মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো সংবাদ