শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ১২:১১ পূর্বাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English

আগাম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন বইছে ভোটের হাওয়া পাকুন্দিয়ায়
এম এ হান্নান পাকুন্দিয়া (কিশোরগঞ্জ / ১০৯ বার
আপডেট : শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০

সারাদেশে  ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন বাকী একবছর বইছে ভোটের হাওয়া

কিশোরগঞ্জ জেলা পাকুন্দিয়া উপজেলার ইউনিয়ন গুলোতে বইছে নির্বাচনী হাওয়া। সম্ভাব্য প্রার্থীদের শুভেচ্ছা ব্যানার ফ্যাসটুনে ভরে গেছে হাট-বাজার। বাড়ি বাড়ি কুশল বিনিময়ও করছেন তারা। চায়ের দোকানে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে চলছে আলোচনা-সমলোচলার ঝড়। ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে সম্ভাব্য প্রার্থীদের প্রচার প্রচারণা ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে।

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনকে সামনে রেখে পাকুন্দিয়া উপজেলা 9টি ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান ও মেম্বার পদপ্রার্থীদের মাঝে প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ততা শুরু হয়ে গেছে। উপজলোর এগারো সিন্দু , বোরুদিয়া, হোসেনন্দি, পাঠুয়াভাঙ্গা, চন্ডিপাশা,সুখিয়া, জাঙ্গালিয়া,চরফরাদী,নারান্দী ইউনয়িনের প্রতিটি গ্রাম, পাড়া-মহল্লায় বিভিন্ন দলের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীরা নানা রকমভাবে চালাচ্ছে তাদের গণসংযোগ। দিচ্ছেন নানান উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি।
সরেজমিনে দেখা গেছে, নির্বাচনে জয়ী হওয়ার আগেই নতুন নতুন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীরা এলাকার রাস্তা ঘাটের উন্নয়নসহ দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি। উপজেলার 9টি ইউনিয়নের প্রতিটি ইউনিয়নে রয়েছে একাধিক চেয়ারম্যান প্রার্থী। নির্বাচনকে সামনে রেখে সম্ভাব্য প্রার্থীদের কেউ কেউ 15 আগষ্ট শোক দিবস উপলক্ষ্যে বিরানি বিতরণ করেছেন এলাকার ভোটারদের মাঝে।
এছাড়াও নানা সমীকরণে ভোটের মাঠে প্রভাব-প্রতিপত্তি থাকে এমন ভোটারদের বাড়িতে ঈদের উপলক্ষ্যে মানুষের মাধ্যমে ও কেউ কেউ কাপড়, লুঙ্গি, সেমাই, চিনি ও নগদ অর্থ পাঠিয়েছেন। এখানেই থেমে থাকছেন না সম্ভাব্য প্রার্থীরা। তাদের তৎপরতা দেখে মনে হয় আর ক দিন পড়েই যেন ভোট। ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে বাড়ি, পাড়া-মহল্লা, হাট-বাজার ও রাজনৈতিক কার্যালয়গুলো বেশ সরগরম। কোথাও কোথাও শুরু হয়ে গেছে গ্রুপং এর ছড়াছড়ি। পাশাপাশি সম্ভাব্য প্রার্থীরা সাধারণ জনগণের মাঝে ছড়িয়ে দিচ্ছেন উন্নয়নমুখী নানা আশ্বাস ও উন্নয়নের আশার বাণী।
এখনো নির্বাচনে ঘোষণার বাকী একবছর এর মধ্যে সম্ভাব্য দলীয় সমর্থন পাওয়ার জন্য তৎপর হয়ে উঠেছেন ওইসব ইউনিয়নের সম্ভাব্য প্রার্থীরা।
অপর দিকে উপজেলা বা দলের কোনো বড় পর্যায়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে তোড়জোড় নেই বিএনপির। তবে ইউনয়িন পর্যায়ে বিএনপি পন্থি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীরা দলীয়ভাবে এলাকায় গণসংযোগ চালাচ্ছেন। দলীয় সমর্থন পাওয়ার আশায় উপজেলা বা জেলা পর্যায়ের প্রভাবশালী নেতাদের সমর্থন আদায়ের জন্য জোর লবিং শুরু করেছে আওয়ামী লীগ সমর্থকরা।
তবে 9টি ইউনিয়নের একাধিক প্রার্থী থাকার কারণে দুঃশ্চিন্তায় অনেকেই। বিএনপি দলের মধ্যে বিএনপি সমর্থক প্রার্থীরাও দলীয় সমর্থন পেতে লবিং শুরুর কোনো আভাস পাওয়া যায়নি। তবে বিএনপিতে একক প্রার্থী থাকবে বলে দলীয় আভাস পাওয়া গেছে।এদিকে সর্বত্র ভোটারদের মধ্যে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। নির্বাচনের কথা শুনে সাধারণ ভোটাররা বিভিন্ন চায়ের স্টলে দিচ্ছেন নির্বাচনী আড্ডা। যেহেতু দলীয় প্রতীকে নির্বাচন, তাই দলীয় চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীকে প্রাধান্য দেবেন ভোটাররা।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো সংবাদ