শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৩:৪১ অপরাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English

তানোরে সুজনকে ডোবাচ্ছে স্বজনরা।
বেনজির আহমেদ তানোর (রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ / ৩৫৬ বার
আপডেট : শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০

রাজশাহীর তানোর পৌরসভায় নির্বাচনের আগাম হাওয়া বইছে চায়ের কাপেও আলোচনার ঝড় উঠেছে। আলোচনার কেন্দ্র বিন্দু কেবলমাত্র মেয়র পদ ঘিরেই আর্বতিত হচ্ছে। ইতমধ্যে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের (সাম্ভাব্য) প্রার্থী প্রসিদ্ধ ব্যবসায়ী এবং বিশিস্ট সমাজ সেবক আবুল বাসার সুজন

মানবিক ও খাদ্য সহায়তা বিতরণ, এলাকার উন্নয়ন এবং ব্যক্তি পর্যায়ে আর্থিক অনুদান প্রদান, প্রচার-প্রচারণা ও গণসংযোগের মাধ্যমে নিজের শক্ত অবস্থান তৈরী করেছেন।

পৌরবাসির অভিমত, সাধারণ মানুষ ও ভোটারদের মধ্যে আলোচনা ও পচ্ছন্দের শীর্ষে রয়েছেন আর্দশিক, তরুণ নেতৃত্ব, প্রসিদ্ধ ব্যবসায়ী ও বিশিস্ট সমাজ সেবক আবুল বাসার সুজন। মেয়র নির্বাচিত হতে একজন প্রার্থীর রাজনৈতিক,সামাজিক,পারিবারিক পরিচিতি, আর্থিক স্বচ্ছলতা, ব্যক্তি ইমেজ, উন্নয়ন মানসিকতা, গ্রহণযোগ্যতা ও নেতৃত্বগুন ইত্যাদি প্রয়োজন সুজন সেই সব গুনের অধিকারী সম্পন্ন প্রার্থী। এসব বিবেচনায় নির্বাচনের মাঠে সুজন অন্যদের থেকে যোজন যোজন দুরুত্বে এগিয়ে রয়েছেন।স্থানীয় সাংসদের জনপ্রিয়তা ও আওয়ামী লীগের জনসমর্থন কাজে লাগাতে পারলে সুজনের বিজয় প্রায় নিশ্চিত।

অন্যদিকে স্থানীয় অধিবাসীদের অভিমত, সুজনের এমন সম্ভবনাময় গোছানো মাঠ ও পরিচ্ছন্ন ব্যক্তি ইমেজের বারোটা (সর্বনাশ) বাজাচ্ছে তাঁর বহিরাগত কিছু চেলা-চামুন্ডা।এদের হাবভাব ও চালচলনে মনে হয় এরা কোনো জমিদার পরিবারের সন্তান আর সাধারন মানুষ প্রজা। সাধারন মানুষ বলছে, সুজন মেয়র না হতেই তাদের এই অবস্থা মেয়র হলে তারা না জানি কি করবে। এরা বিভিন্ন নেতাকর্মীদের নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য, তুচ্ছ-তাচ্ছিল ও টিজ করা, নেতাকর্মীদের হাত খরচ, গণমাধ্যম কর্মীদের সম্মানি ও সাধারন মানুষকে আর্থিক সহায়তা দিয়ে ব্যঙ্গ এবং বিভিন্ন মহলে এসব নিয়ে সমালোচনা করা ইত্যাদি কারণে এসব বহিরাগত চেলা-চামুন্ডাদের আচরণে দলের নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষ ক্ষুব্ধ হলেও প্রকাশ্যে কোনো প্রতিবাদ করতে পারছে না তবে, তাদের হৃদয়ে ঠিকই রক্তক্ষরণ হচ্ছে। এসব চেলা-চামুন্ডরা তাকে এমনভাবে ঘিরে রেখেছে যে তাদের চক্রব্যুহ ভেদ করে সাধারন মানুষ প্রাণখুলে সুজনের সঙ্গে মিশতে পারছে না।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তানোর পৌর যুবলীগের এক জৈষ্ঠ নেতা বলেন, সুজন ভাই ভাল মানুষ এবং যোগ্য প্রার্থী এটা নিয়ে কারো কোনো সন্দেহের অবকাশ নাই, কিন্ত বহিরাগত চেলা-চামুন্ডাদের অতিরিক্ত বাড়াবাড়ি সাধারণ মানুষের মাঝে তাকে নিয়ে নেতিবাচক মনোভাব সৃস্টি করছে, তাই এখানোই এসব চেলা-চামুন্ডাদের পরিহার করাই শ্রেয়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তানোর পৌর আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল এক নেতা বলেন, সুজন যোগ্য প্রার্থী হবে সেটা ঠিক তবে তিনি তানোর পৌরসভায় নির্বাচন করবেন তাই ভালমন্দ যাই হোক তিনি পৌরসভার নেতাকর্মীদের নিয়ে চলাফেরা করবেন সেটাই উত্তম, তা না করে বহিরাগত এসব চেলা-চামুন্ডা নিয়ে চলাফেরা করায় তাদের জন্য তার ব্যক্তি ইমেজক্ষুন্ন হচ্ছে।তিনি বলেন, তাদের সঙ্গে যদি তার ব্যবসায়িক কোনো স্বার্থ থাকে তাহলে ব্যবসার জায়গায় ব্যবসা আর রাজনীতির জায়গায় রাজনীতি তাদের এখানোই পরিহার করা উচিৎ বলে তিনি মনে করেন। এব্যাপারে একাধিকবার যোগাযোগের চেস্টা করা হলেও আবুল বাসার সুজন মুঠোফোনে কল গ্রহণ না করায় তার কোনো বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো সংবাদ