শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ০৬:১০ পূর্বাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English

দেশের ইতিহাস বঙ্গমাতা ছাড়া সম্পূর্ণ হতে পারে না …………..মেহের আফরোজ চুমকি এমপি।
বিল্লাল হোসেন, নিজেস্ব প্রতিবেদক / ৬৭ বার
আপডেট : শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১

সাবেক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি এমপি বলেছেন, দেশের ইতিহাস বঙ্গমাতা ছাড়া সম্পূর্ণ হতে পারে না। বঙ্গবন্ধু আর বঙ্গমাতা দুইজন একই চেতনার মানুষ ছিলেন। বঙ্গবন্ধু প্রকাশে ও বঙ্গমাতা অন্তরালে থেকে দেশ ও জাতির জন্য নিরলসভাবে কাজ করে গেছেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান জাতির পিতা হলে তার স্ত্রী শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব হবেন জাতির মাতা। স্বামীর সংসারের এসে তিনি অতি সাধারন জীবনযাপন করেছেন। তার মেধা ও প্রজ্ঞা দিয়ে বঙ্গবন্ধুকে সবসময় সাহস ও অনুপ্রেরণা যুগিয়েছিলেন। স্বাধীনতার আগে ও পরে দেশের যেই ইতিহাস রয়েছে, সেই ইতিহাস বঙ্গমাতা ছাড়া কেউ বেশি জানে না। সংসার জীবনে স্বামী-স্ত্রী তারা দুইজন দুইজনকে সম্মান করতেন। সোমবার সকাল সাড়ে এগোরটায় কালীগঞ্জ উপজেলা শহীদ ময়েজউদ্দিন অডিটোরিয়ামে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব এর ৯০ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে এক আলোচনা সভা ও নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সাবেক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি এমপি এসব কথা বলেন।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর ও জাতীয় মহিলা সংস্থার উদ্যোগে উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
মেহের আফরোজ চুমকি এমপি আরোও বলেন, রাজনীতির কারণে প্রায় সময় বঙ্গবন্ধুকে জেলে যেতে হয়েছে। সেই সময় দলীয় নেতাকর্মীদের বঙ্গমাতা সাহস যুগিয়েছেন এবং আন্দোলন-সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার জন্য তাদের উৎসাহ দিয়েছিলেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতাসহ তাদের পরিবারকে নিষ্ঠুর নির্মমভাবে হত্যা করে বাংলার ইতিহাস মুছে দিতে চেয়েছিল স্বাধীনতা বিরোধী দোসররা। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলার ইতিহাসে স্মরণীয় হয়ে আছে, ঠিক তেমনিভাবে বঙ্গমাতাও বাংলার ইতিহাসে স্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

আলোচনা সভার পর বঙ্গবন্ধু তার পরিবারের শহীদদের মাগফিরাত কামনা করে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। পরে ৬ জন মহিলার মাঝে সেলাই মেশিন ও বিভিন্ন প্রজাতির ২০টি চারা বিতরণ করেন তিনি।
কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও ) মো. শিবলী সাদিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোয়াজ্জেম হোসেন পলাশ, ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মাকসুদ-উল আলম খান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শর্মিলা রোজারিও প্রমুখ।
অন্যান্যদের মধ্যে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক এইচ.এম আবু বকর চৌধুরী, গাজীপুর জেলা পরিষদের সদস্য তাসলিমা রহমান লাভলী, উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা শাহানাজ আক্তার, কালীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএম রবিন হোসেন, সাধারন সম্পাদক মো. কামরুল ইসলামসহ দলীয় অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো সংবাদ