বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০১:০৪ অপরাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English

কুড়িগ্রামে রাজারহাটে স্কুলছাত্রীর ধর্ষকদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন
প্রশান্ত (কুড়িগ্রাম) জেলা প্রতিনিধি / ১৭ বার
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০

কুড়িগ্রামে রাজারহাটে মাঝরাতে বাসা থেকে ঘুমন্ত কমলমতি ৯ম শ্রেণির ছাত্রীকে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণের প্রতিবাদ ও ধর্ষকদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন ও সড়ক অবরোধ করেছে এলাকাবাসী ।
মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) সকাল ১০ টায় কুড়িগ্রামে রাজারহাট উপজেলার ছিনাই ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনসাধারণ ধর্ষকদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে ২ ঘন্টাব্যাপী কুড়িগ্রাম রংপুর মহাসড়ক অবরোধ ও মানববন্ধন করে। এসময় সড়কে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে ধর্ষকদের গ্রেফতারে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়ে সড়ক অবরোধ তুলে নেয় এলাকাবাসী। এদিকে দুপুর সাড়ে ১২ টায় ওই একই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে কুড়িগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে ধর্ষকদের গ্রেফতার ও বিচার দাবিতে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন করে জেলা ছাত্রলীগ পরিবার। এসময় জেলা ছাত্রলীগ পরিবারের পক্ষে নেতৃত্বে ছিলেন রনি,মহসিন, আশিক , জনি প্রমুখ উল্লেখ্য গত রবিবার (২৬ জুলাই) মধ্যরাতে কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার ছিনাই ইউনিয়নের মহিধর গ্রামে মা বাবাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে তাদের সামনে থেকে ৯ম শ্রেণীর ছাত্রীকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে ৩ নরপিচাশ। গত সোমবার (২৭জুলাই) সকালে এলাকাবাসী ধর্ষিতা মেয়েটি ও তার গুরুতর আহত পিতাকে উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। ও-ই দিনই রাজারহাট থানায় ধর্ষিতার পিতা মোঃ রেজা শাহ পাহলভি বাদী হয়ে ধর্ষন ও দস্যুতার মামলা দায়ের করে।
পরে সোমবার বিকেলে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খাঁন (বিপিএম), সহকারী পুলিশ সুপার উৎপল কুমার ও রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ রাজু সরকার। এব্যাপারে রাজারহাট থানার অফিসার ইনচার্জ রাজু সরকার সড়ক অবরোধ ও মানববন্ধনে কিছু উশৃংখল ব্যক্তি বিশৃঙ্খলার সৃস্টি করার অপচেষ্টায় লিপ্ত ছিলো জানিয়ে বলেন, দস্যুতা ও ধর্ষণের ঘটনাটি এলাকার কতিপয় বখাটেদের কাজ হতে পারে। তবে অপরাধী যেই হোক তাদের গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো সংবাদ