মঙ্গলবার, ১১ অগাস্ট ২০২০, ১০:২৮ পূর্বাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English

টাঙ্গাইল পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের উন্নয়নের প্রতীক কাউন্সিলর মোঃআব্দুর রাজ্জাক
মোঃ একদিল হোসেন বার্তা সম্পাদক সন্ধান বাংলা টিভি / ১৬০ বার
আপডেট : মঙ্গলবার, ১১ অগাস্ট ২০২০

টাঙ্গাইল পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের উন্নয়নের প্রতীক কাউন্সিলর মোঃআবটাঙ্গাইল পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের উন্নয়নের প্রতীক হিসেবে সু-পরিচিত হয়ে উঠেছেন কাউন্সিলর মোঃ আব্দুর রাজ্জাক। আজ থেকে প্রায় ১৩৩বছর পূর্বে টাঙ্গাইল পৌরসভা প্রতিষ্ঠিত হলেও টাঙ্গাইল পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডটি ছিল সবচেয়ে অবহেলিত। ওয়ার্ডবাসী পৌরসভার সকল সুযোগ সুবিধা থেকে ক্রমাগত বঞ্চিত হয়ে আসছিলেন। টানা ১২০ বছর ওয়ার্ডটি ছিল, আদি কালের গেঁয়ো অবস্থায়।পায়ে হেঁটে চলার একটি ভালো রাস্তাও এই ওয়ার্ডে ছিল না। এই ওয়ার্ডের মাঝ দিয়ে অনেক গুলো খাল বয়ে গেছে। সেখানে ছিল না ব্রীজের ব্যবস্থা,এক সময় বাঁশের সেতু হয়ে আর পায়ে হাঁটা সরু রাস্তা দিয়েই মানুষকে চলতে হতো এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায় এমনটি শহরেও তবে সেদিন আর নেই। ৯নং ওয়ার্ডের ৫০শতাংশ রাস্তা এখন পাঁকা খাল গুলোর উপরেও নির্মাণ করা হয়েছে ব্রীজ-কালভার্ট।ঘরে ঘরে রয়েছে পিডিবি আর পল্লী বিদ্যুতের সংযোগ, আলোকিত হয়েছে পুরো এলাকা। শহরের অনেক সুযোগ -সুবিধা এখন পৌরসভার এই ওয়ার্ডবাসী ভোগ করছে।আর এই সুযোগ -সুবিধা গুলো এনে দিয়েছে টাঙ্গাইল পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের পর পর দুইবার নির্বাচিত কাউন্সিলর জনাব মোঃ আব্দুর রাজ্জাক। সন্ধান বাংলা টিভি কে বলেন। আমি সমাজের মানুষের জন্যে কাজ করতে স্বাচ্ছ্যন্দ্ব বোধ করি।তিনি আরো বলেন সমাজের জন্যে একজন নিবেদিত প্রাণ। হিসেবে কাজ করতে আমি ইচ্ছা বোধ করি প্রথমবার নির্বাচিত হয়েই নিজ কর্মদ্বারা আমি এলাকাবাসীর মন জয় করে ফেলি ফলে, দ্বিতীয় বার নির্বাচনে মানুষ আমাকে সাদরে বরণ। করেনেন এবং পুনরায় আবার নির্বাচিত করেন। যে কারণে আমার ওয়ার্ডের জনগণের কাছে আমি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ আছি এবং থাকব। জনাব আঃ রাজ্জাক তার ওয়ার্ডে ৫০ শতাংশেরও বেশি এলাকার রাস্তা পাঁকা করণের কাজ সম্পন্ন করেন। একাধিক খালের উপর দিয়ে নির্মাণ সম্পন্ন করান সেতু।পানীয় জলের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা করেন।এখন ঘরে ঘরে রয়েছে বিদ্যুৎ। জনাব মোঃ আব্দুর রাজ্জাক আগামীতে সুযোগ পেলে ৯নং ওয়ার্ডে শতভাগ পাঁকা রাস্তা ড্রেনেজ ব্যবস্থা, ট্যাপ লাইনের মাধ্যমে বিশুদ্ধ পানীয় জলের ব্যবস্থা, গ্যাস এবং বিনোদনের জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা করবেন বলে আশা প্রকাশ করেন। শুধু তাই নয় সারা বছরই মশক নিধনের কাজও চালিয়ে যেতে চান।তিনি পৌরসভার মাধ্যমে চিকিৎসা সুবিধার্থে স্বাস্থ্যকেন্দ্র প্রতিষ্ঠিত এবং ৯নং ওয়ার্ডটিকে মাদকমুক্ত করতে কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন বলে জানান।এই কার্যক্রম আগামীতে আরো জোরদার করে প্রত্যাশিত শান্তি প্রতিষ্ঠা করবেন বলে প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো সংবাদ