শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:৩৮ পূর্বাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English

ঘিওর বাসির বন্যায় চলাচলের একমাত্র বাহন হচ্ছে নৌকা
মো. ফরিদ মিয়া (ঘিওর) মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি / ১৮০ বার
আপডেট : শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১

ঘিওর উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের মানুষজনের বন্যায় চলাচলের একমাএ বাহন হচ্ছে নৌকা। পদ্মা- যমুনার সাথে পাল্লা দিয়ে ঘিওর উপজেলায় পুরাতন ধলেশ্বরী নদীর পানি এখন অবনতি হয়েছে।

উপজেলা ৭টি ইউনিয়নের প্রায় ২ লক্ষাধিক মানুষ এখন পানি বন্দি। এই বন্যায় নৌকাই এখন এলাকা বাসির একমাত্র ভরসা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, উপজেলার বড়টিয়া, পয়লা ও সিংজুরিতে বন্যায় তলিয়ে গেছে বাড়ী- ঘর ও রাস্তা ঘাট। প্রতিদিন নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হওযায় বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে সড়ক যাতায়াত ব্যবস্থা। গবাদি পশুসহ পরিবার নিয়ে বানভাসিদের দূর্ভোগ বেড়েছে।

এদিকে আইন-শৃংখলাসষ্ঠু-সুন্দর রাখতে জনগনের জান মাল রক্ষার্থে ঘিওর থানা অফিসারার্স ইনচার্জ মুহাম্মদ আশরাফুল আলম এর নেতৃত্বে থানা প্রশাসন অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে।

দুর্ভোগ লাঘবে ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার সহ খাদ্য সামগ্রী বন্যার্থদের মাঝে পৌছে দিচ্ছেন।

উপজেলার পয়লা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ হারুন অর রশিদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর উপহার ও খাদ্য সামগ্রী প্রায় চারশত বানভাসি পরিবারের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে। ঈদ উপহার হিসেবে আরও ১০৮০ পরিবারের মাঝে ঈদসামগ্রি বিতরণের প্রস্তুতি চলছে।ইউনিয়নে প্রায় ২০ হাজার মানুষ পানিবন্দি রয়েছে। ইউনিয়নটি নদীভাংগনে শুলাকুরিয়া এবং বেগুন নারচি প্রায় ২৩০টি বাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। তবুও এরা বাঁচার আশায় বুক বেধে আছে। উন্নয়নের ”বাতিঘর” প্রধানমন্ত্রীর ভরসায় – নির্দশে আমি এবং আমার ইউপি সদস্যগন দুর্যোগপূর্ণ এলাকায় কাজ করে যাচ্ছি।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরির আরো সংবাদ